হোম অর্থনীতি আগামী বাজেটে কি টাকা সাদা করার বিশেষ সুযোগ থাকছে!

আগামী বাজেটে কি টাকা সাদা করার বিশেষ সুযোগ থাকছে!

অনলাইন ডেস্ক 20 May, 2021 8:11 AM

আগামী-বাজেটে-কি-টাকা-সাদা-করার-বিশেষ-সুযোগ-থাকছে!-2021-05-20-60a5c5467b277.jpeg

কালোটাকা সাদা করার ‘বিশেষ সুযোগ’ আগামী ২০২১-২২ অর্থবছরে থাকছে না। তবে আগের মতো নির্ধারিত করের অতিরিক্ত জরিমানা দিয়ে কালোটাকা সাদা করার পদ্ধতি বহাল থাকছে। অর্থনীতিবিদ, পেশাজীবী ও ব্যবসায়ীদের আপত্তির প্রেক্ষিতে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। অর্থ মন্ত্রণালয় ও জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

চলতি বাজেটে বিশেষ ‘সুযোগ হিসাবে’ ১০ শতাংশ কর দিয়ে পুঁজিবাজারে অপ্রদর্শিত বিনিয়োগ, নগদ অর্থ, স্থায়ী আমানত, জমি-ফ্ল্যাট রিটার্নে দেখানোর সুযোগ দেয়া হয়। ৩০ জুন পর্যন্ত এ সুযোগ রয়েছে। সেই সুযোগ কাজে লাগিয়ে গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত ৮ হাজার ৩৩৩ জন টাকা সাদা করেছেন।

মূলধারার অর্থনীতিতে কালোটাকা আনতে এক বছরের জন্য এ বিশেষ সুযোগ দেয়া হয়েছিল। এর সময়সীমা আর বাড়ানো হবে না। কারণ দেশে ব্যক্তি শ্রেণির সর্বোচ্চ কর হার ২৫ শতাংশ। এ সুযোগ অব্যাহত রাখা হলে করদাতারা নিয়মিত কর না দিয়ে তা লুকিয়ে রেখে পরবর্তীকালে কম হারে কর দেয়ার চেষ্টা করতে পারেন।

এ পদ্ধতি চালু রাখলে সৎ ও নিয়মিত করদাতাদের নিরুৎসাহিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তাই এ বিশেষ বিধান বাতিল করে আগের সব পদ্ধতি বহাল রাখা হচ্ছে।

এ পদ্ধতি ছাড়াও বর্তমানে আরও ৩ পদ্ধতিতে অপ্রদর্শিত অর্থ বৈধ (কালোটাকা সাদা) করা যায়। আয়কর অধ্যাদেশের ১৯(ই) ধারা অনুযায়ী, নির্ধারিত করের অতিরিক্ত ১০ শতাংশ জরিমানা দিয়ে যে কোনো খাতেই কালোটাকা বিনিয়োগ করা যায়। শুধু আবাসন খাতের জন্য ১৯বিবিবিবিবি নামে আয়কর অধ্যাদেশে আলাদা একটি ধারা আছে।

এ ধারা অনুযায়ী, এলাকাভিত্তিক নির্ধারিত হারে কর পরিশোধের মাধ্যমে কালোটাকা বা অপ্রদর্শিত অর্থ দিয়ে ফ্ল্যাট কেনা যায়। ১৯ডিডি ধারা অনুযায়ী, ১০ শতাংশ কর দিয়ে অর্থনৈতিক অঞ্চল ও হাইটেক পার্কে বিনিয়োগ করা যায়।

এসব ক্ষেত্রে এনবিআর অর্থের উৎস সম্পর্কে প্রশ্ন করবে না। কালোটাকার ইতিহাস পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, স্বাধীনতার পর থেকে নানাভাবেই কালোটাকা বিনিয়োগের সুযোগ দেয়া হয়।


আরও :

আমাদের সাথে যুক্ত থাকুন

আরও সংবাদ