হোম অর্থনীতি বীরগঞ্জের মাটিতে বিশ্বের সবধরনের কৃষি পণ্য উৎপাদন ফলানো সম্ভব -কৃষিমন্ত্রী

বীরগঞ্জের মাটিতে বিশ্বের সবধরনের কৃষি পণ্য উৎপাদন ফলানো সম্ভব -কৃষিমন্ত্রী

প্রদীপ রায় জিতু || দিনাজপুর প্রতিনিধি 16 Mar, 2021 11:26 AM

বীরগঞ্জের-মাটিতে-বিশ্বের-সবধরনের-কৃষি-পণ্য-উৎপাদন-ফলানো-সম্ভব--কৃষিমন্ত্রী-2021-03-16-605041893731e.jpg

কৃষিমন্ত্রী বীরমুক্তিযোদ্ধা ড. আব্দুর রাজ্জাক এমপি বলেন, সারাবিশ্বে যতরকমের কৃষি পন্য উৎপাদন হয় তা সবই দিনাজপুরের মাটিতে ফলানো সম্ভব।

এ এলাকার মাটি উর্বতার কারনে তা ফলন হবেও দিগুন উল্লেখ করে বলেন, বাংলাদেশের দ্রুত অর্থনৈতিক উন্নয়ন অগ্রযাত্রায় এক গুরুত্বপুর্ন অধ্যায়ের নাম কৃষি। উৎপাদনশীলতা, আয় বৃদ্ধি এবং গ্রামীণ এলাকায় কর্মস্থান সৃষ্টির মাধ্যমে আমাদের বিশাল জনগোষ্ঠীর সমৃদ্ধির জন্য কৃষির গুরুত্বপুর্ন ভুমিকা রয়েছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান অনুধাবন করেছিলেন কৃষির উন্নতিতে নিহীত রয়েছে কৃষকের অর্থনৈতিক মুক্তি। বর্তমান কৃষিতে দেশের যে অন্যান্য সাফল্য তা বঙ্গবন্ধুর দুরদর্শিতা ও পরিকল্পনার ধারাবাহিকতা। সাম্প্রতিক বছরগুলিতে হাইব্রিড ভুট্টা ও শাকসবজি উৎপাদনে কয়েক গুন বৃদ্ধি পেয়েছে। ফসলের নিবিড়তা গত ৫ বছরে শতকরা ১৯২ হতে ২১৬ ভাগে উন্নীত হয়েছে। বর্তমানে কৃষিতে বাংলাদেশের অবস্থান বিশ্বে পাট উৎপাদনে ৭ম, কাঠাল উৎপাদনে ২য়, ধান উৎপাদনে ৩য়, সবজি উৎপাদনে ৩য়, আম উৎপাদনে ৭ম, আলু উৎপাদনে ৭ম, পেয়ারা উৎপাদনে ৮ম। সারাবিশ্বের কাছে বাংলাদেশ এখন কৃষিতে রোল মডেল।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার লক্ষ্য পরিবেশ সম্মতভাবে পুষ্টিসমৃদ্ধ নিরাপদ খাদ্য উৎপাদনের মাধ্যমে পুষ্টি নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ, উচ্চ মুল্যের ফসল রপ্তানীমুখীকরণ, খাদ্য সংরক্ষণ ও প্রক্রিয়করন ব্যবস্থাপনা জোরদারকরণ। তিনি আরোও বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ দিয়েছেন বাংলাদেশের এক ইঞ্চি জমিও যেন অনাবাদি না থাকে। আমাদের কৃষি উৎপাদন আরও বাড়াতে হবে।

প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও শ্রমিক সংকট মোকাবেলায় কৃষি যান্ত্রিকীকরণের বিকল্প নেই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে রুপকল্প ২০২১ এর ধারাবাহিকতায় টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য মাত্রা ২০৩০ , ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মানের প্রত্যয়ে কৃষি সেক্টরে অর্জনের এই ধারা অব্যাহত রাখার জন্য জোর প্রচেষ্টা চালিয়ে যাওয়ার আহবান জানান। সকলের প্রচেষ্টায় উন্নত দেশের অভিযাত্রায় বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত সুখী-সমৃদ্ধ সোনার বাংলা গড়ে তুলতে সক্ষমঅর্জন হবে।

১৫ মার্চ সোমবার বিকেলে দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার ৫ নং সুজালপুর ইউনিয়নের শীতলাই গ্রামে ৫০ একর জমিতে সমালয় চাষের প্লট পরিদর্শন ও আবেদিন ইকুইপমেন্ট লিমিটেডের জ্বালানি সাশ্রয়ী উন্নতমানের প্রযুক্তি জাপানি কুবোতা ‘হেড ফিডিং’ কম্বাইন হারভেস্টার মেশিন পরিদর্শন শেষে এক মতবিনিময় সভায় এই অঞ্চলের সাধারণ কৃষক ও সমালয় চাষীদের উদ্দেশ্যে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি কৃষিমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. আব্দুর রাজ্জাক এমপি এসব কথা বলেন। বক্তব্য রাখেন বিশেষ অতিথি জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি, দিনাজপুর -১ আসনের সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল, কৃষি মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মোঃ মেসবাহুল ইসলাম, বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়নের চেয়ারম্যান ড. অমিতাব সরকার, কৃষি সম্প্রসারণ অধিপ্তরের মহাপরিচালক মোঃ আসাদুল্লাহ, দিনাজপুর জেলা প্রশাসক খালেদ মোহাম্মদ জাকী, জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন বিপিএম, পিপিএম (বার), দিনাজপুর জেলা আ.লীগের সাধারন সম্পাদক আজিজুল ইমাম চৌধুরী, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ আমিনুল ইসলাম, দিনাজপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ মোঃ তৌহিদুল ইকবাল প্রমুখ। এসময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আব্দুল কাদের, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ ডালিম সরকার, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবীদ আবু রেজা মো. আসাদুরজ্জামান,স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানবৃন্দ, ইউপি সদস্য, গ্রাম পুলিশ, বীরগঞ্জ থানা পুলিশ, বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া কর্মী, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, সমালয় চাষি সহ দলমত নির্বিশেষে সকলে উপস্থিত ছিলেন।


আরও :

আমাদের সাথে যুক্ত থাকুন

আরও সংবাদ