হোম আন্তর্জাতিক নিজেকে যুক্তরাষ্ট্রের গর্বিত প্রেসিডেন্ট দাবি করলেন - ট্রাম্প

নিজেকে যুক্তরাষ্ট্রের গর্বিত প্রেসিডেন্ট দাবি করলেন - ট্রাম্প

অনলাইন ডেস্ক 20 Jan, 2021 3:50 PM

নিজেকে-যুক্তরাষ্ট্রের-গর্বিত-প্রেসিডেন্ট-দাবি-করলেন---ট্রাম্প-2021-01-20-6007fcfb80788.JPG

নতুন প্রেসিডেন্টের অভিষেকের আগে মঙ্গলবার সমাপনী ভাষণ দিয়েছেন বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ৪ বছরের শাসনামলে যুক্তরাষ্ট্র নতুন কোনো যুদ্ধে জড়ায়নি উল্লেখ করে তিনি উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন ।


ভিডিও বার্তায় ট্রাম্প বলেন, গত কয়েক দশকের মধ্যে আমিই প্রথম প্রেসিডেন্ট যে নতুন কোনো যুদ্ধে জড়ায়নি। এ জন্য আমি বিশেষভাবে গর্বিত। ভাষণে তার শাসনামলে দায়িত্বপালনকারী প্রশাসনিক কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ধন্যবাদ জানান তিনি।

ভাষণের শুরুতে ট্রাম্প বলেন, যুক্তরাষ্ট্রকে আবারও শ্রেষ্ঠ করার লক্ষ্য নিয়ে দায়িত্ব পালন শুরু করি। ভাষণে এ স্লোগান তিনি বেশ কয়েকবার উচ্চারণ করেন। বলেন, যে কারণে দায়িত্ব নিয়ে হোয়াইট হাউসে এসেছি তা আমরা করেছি; বরং তার চেয়ে অনেক বেশি করেছি।

এ সপ্তাহে আমরা নতুন প্রশাসনের অভিষেক করতে যাচ্ছি। তারা যাতে যুক্তরাষ্ট্রের নিরাপত্তা এবং সমৃদ্ধি ধরে রাখতে পারে সে জন্য প্রার্থনা করছি। উত্তরসূরির নাম উল্লেখ না করে নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রশাসনকে শুভেচ্ছা জানান ট্রাম্প।

ট্রাম্প বলেন, তার প্রশাসন মার্কিন মিত্রদের পুনরুজ্জীবিত করেছে। চীনকে মোকাবিলায় বিশ্ববাসীকে একত্রিত করেছে। যা আর কখনো হয়নি আগে।

মধ্যপ্রাচ্য সম্পর্কে বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, যুক্তরাষ্ট্র দায়েশ বা আইএসআইস খেলাফত এবং তাদের নেতাদের হত্যা করেছে। নিপীড়ক ইরানি সরকারের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছে এবং বিশ্বের শীর্ষ সন্ত্রাসী, ইরানি কসাই কাসেম সোলাইমানিকে হত্যা করেছে।

তিনি আরও বলেন, তার শাসনামলে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের বিরোধিতা সত্ত্বেও জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী এবং গোলান মালভূমিতে ইসরাইলের সার্বভৌমত্বকে স্বীকৃতি দিয়েছে ওয়াশিংটন।

উল্লেখ্য, ৪৬তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে অভিষেক হতে যাচ্ছে জো বাইডেনের। কিন্তু ৩ নভেম্বর অনুষ্ঠিত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ফলাফল প্রত্যাখ্যান করেছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। অভিযোগ এনেছেন নির্বাচনী ফলাফল গণনায় ব্যাপক কারচুপির। আয়োজন করেন বিশাল গণসমাবেশ।

৬ জানুয়ারি ওয়াশিংটন ডিসিতে আয়োজিত গণসমাবেশে জনতার উদ্দেশে বিতর্কিত বক্তব্য দেন ট্রাম্প। তারপরই তার সমর্থকরা ক্যাপিটল হিলে হামলা চালায়। তখন আইনপ্রণেতারা সেখানে বাইডেনের বিজয় প্রত্যয়নের জন্য ইলেক্টোরাল কলেজ ভোট গণনা করছিলেন।

মার্কিন পার্লামেন্টে হামলা চালায় ট্রাম্পের উগ্র সমর্থকরা। তাদের হামলায় নিহত হয় ৫ জন।

বিদ্রোহকে প্ররোচিত করায় মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদে অভিশংসিত হয়েছেন ট্রাম্প। নতুন প্রশাসনের অভিষেকের পর সিনেটে ওই অভিযোগের শুনানি শুরু হবে।

ট্রাম্প বলেন, বুধবার বিকেলে নতুন প্রশাসনের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তরের প্রস্তুতি নিচ্ছি আমি। আমি আপনাদের জানাতে চাই, আমরা যে অগ্রযাত্রা শুরু করেছি এটা কেবল শুরু। এ ধরনের যাত্রা আগে কখনোই হয়নি। নাগরিকদের সেবা করাই হোয়াইট হাউসের দায়িত্ব। কখনোই এর ব্যত্যয় ঘটবে না। বরং দিনে দিনে এ প্রতিশ্রুতি আরও শক্তিশালী হবে।


আরও :

আমাদের সাথে যুক্ত থাকুন

আরও সংবাদ